1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৮:০৯ অপরাহ্ন

এমএলএমের নামে ৫০ কোটি হাতিয়েছে এ’ওয়ান লিমিটেড

রিপোর্টার
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৯৩৩ বার দেখা হয়েছে
এমএলএমের নামে ৫০ কোটি হাতিয়েছে এ’ওয়ান লিমিটেড
রাজধানীর মতিঝিলে এ’ওয়ান বাজার লিমিটেড নামে একটি প্রতারক এমএলএম কোম্পানির সন্ধান পেয়েছে র‌্যাব। সোমবার বিকেলে মতিঝিলের ১ নম্বর আর কে মিশনের ইত্তেফাক ভবনের পঞ্চম তলায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়।

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর মতিঝিলে অভিযান চালিয়ে এ’ওয়ান বাজার লিমিটেড নামে সম্পূর্ণ অনুমোদনবিহীন এবং ভুয়া মাল্টি-লেভেল মার্কেটিং (এমএলএম) ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সন্ধান পেয়েছে র‌্যাব। এ সময় প্রতিষ্ঠানটির সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে মতিঝিলের ১ নম্বর আর কে মিশনের ইত্তেফাক ভবনের ৫ম তলায় শুরু হয় এই অভিযান। অভিযানের নেতৃত্ব দেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু।
গ্রেফতাররা হচ্ছেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. নুরুল ইসলাম (৪২), পরিচালক (অর্থ) মো. ফেরদৌস খান (৪৮), পরিচালক (প্রশাসন) মো. রেজাউল করিম মিন্টু (৫৬), পরিচালক (মানবসম্পদ) মো. আবুল কালাম আজাদ (৪০), পরিচালক আসাদুল্যাহ দেওয়ান (৪৬), পরিচালক মো. আব্দুস ছাত্তার (৩৭) এবং মো. জাহাঙ্গীর আলম (৫০)।
র‌্যাব জানায়, অভিযানে র‌্যাব দেখতে পায় ওই ভবনে অফিস নিয়ে এ’ওয়ান হেলথ কেয়ার এবং এ’ওয়ান বাজার লিমিটেড নামে সম্পূর্ণ অনুমোদনবিহীন এবং ভুয়া মাল্টি-লেভেল মার্কেটিং (এমএলএম) কোম্পানির ডাইরেক্টর নিয়োগের চিত্র। এছাড়া ভুয়া কোম্পানির নামে তারা জেলা-উপজেলায় ডিলার ও সেলসম্যান নিয়োগের নামে প্রায় ৪০ হাজার গ্রাহকের কাছ থেকে ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেন।
র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু জানান, গ্রেফতাররা দীর্ঘদিন ধরে এ’ওয়ান হেলথ কেয়ার এবং এ’ওয়ান বাজার লিমিটেড নামীয় প্রতিষ্ঠান ডেসটিনির মতো গ্রাহক সংগ্রহ করে মাল্টি-লেভেল মার্কেটিং (এমএলএম) ব্যবসা করে আসছে। কিন্তু তাদের এরকম ব্যবসার সরকার কর্তৃক কোনো অনুমোদন নেই। এমনকি তারা যে নামে প্রতিষ্ঠান খুলেছে আদৌ তার কোনো অস্তিত্বও নেই, যা সম্পূর্ণ ভুয়া একটি প্রতিষ্ঠান। কোম্পানিটির ডাইরেক্টর নিয়োগ দেয়ার নাম করে এবং লবঙ্গ টি নামক বিএসটিআই অনুমোদনবিহীন নি¤œমানের একটি পণ্য বাজারজাতকরণের নিমিত্তে এরা জেলা, উপজেলায় ডিলার ও সেলসম্যান নিয়োগের নামে প্রায় ৪০ হাজার গ্রাহকের কাছ থেকে অর্ধশত কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এভাবে তারা সাধারণ জনগণের সাথে প্রতারণা করে আসছে। আসামিদের বিরুদ্ধে নিয়মিত আইনে মামলা করবে র‌্যাব।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি