1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৫৮ অপরাহ্ন

ওয়েবিলের নামে বাসে বাড়তি ভাড়া আদায়

রিপোর্টার
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৪০ বার দেখা হয়েছে

প্রতি লিটারে জ্বালানি তেলের মূল্য ৫ টাকা হ্রাসের পরে ৩১ আগস্ট(বুধবার) বিআরটিএ যানবাহনের ভাড়া কিলোমিটার প্রতি ৫ পয়সা কমানোর ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু এই হ্রাসকৃত ভাড়ার কোনো প্রভাব নেই রাজধানীতে ভাড়া আদায়ের ক্ষেত্রে।

এ প্রতিবেদক বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯ টায় সময় সায়েন্স ল্যাব মোড় থেকে যাত্রীবেশে বিকাশ পরিবহনের একটি বাসে ওঠেন। বাসের কন্ট্রাক্টর সায়েন্স ল্যাব থেকে কুড়িল বিশ্বরোডের ভাড়া ৪৫ টাকা দাবি করেন।

এ সময় ১৩.৯ কিলোমিটারের ভাড়া ৩৪ টাকা তারপরও অতিরিক্ত ১১ টাকা ভাড়া আদায়ের কারণ জানতে চাইলে বাস কন্ট্রাক্টর বলেন, ওয়েবিল অনুয়ায়ী বাসভাড়া দিতে হবে। আপনি দুটি চেক(ওয়েবিল পয়েন্ট) পার হবেন এজন্য ৫০ টাকা ভাড়া, একটু আগে নামবেন সেজন্য ৪৫ টাকা ভাড়া চাইছি।

সরকার ও বাসমালিক সমিতি ওয়েবিল বন্ধ করার পরেও কেন ওয়েবিলের মাধ্যমে ভাড়া আদায় হচ্ছে জানতে চাইলে এই বাস কন্ট্রাক্টর বলেন, মালিক বসাইছে আমি কী করবো?

সায়েন্স ল্যাব থেকে কুড়িল পর্যন্ত পথে মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ ও বনানীতে বিকাশ পরিবহনের দুটি ওয়েবিল পয়েন্ট আছে। প্রতি ওয়েবিল পার হলেই বেশি নেওয়া হচ্ছে ২৫ টাকা করে।

আর এ বাড়তি ভাড়া আদায় নিয়ে বাগবিতণ্ডা হচ্ছে যাত্রীদের সঙ্গে। বিকাশ পরিবহনের যাত্রী শাহরিয়ার হোসেন নিকুঞ্জ এলাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন।

তিনি বলেন, প্রতিদিন রাসেল স্কয়ার থেকে নিকুঞ্জে যেতে হয় বিকাশ পরিবহন অথবা ভি. আই. পি পরিবহন দিয়ে। কিন্তু এ রুটে ভিআইপি পরিবহনে ৩৫ টাকা হলেও ৪৫ টাকা ভাড়া নেয় বিকাশ পরিবহন। চার্ট অনুযায়ী ভাড়া নেওয়ার কথা বললে ওয়েবিলের কথা বলে ভাড়া বেশি আদায় করে।

রাজধানীতে ওয়েবিলের মাধ্যমে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় অব্যাহত থাকলেও ঢাকা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এনায়েত উল্লাহ বুধবারের বৈঠকে দাবি করেছেন, রাজধানীতে কোথাও ওয়েবিল সিস্টেম নেই।

এর আগে, গত ৬ আগস্ট জ্বালানি তেলের বর্ধিত দামের সঙ্গে সমন্বয় করে বাস ভাড়া বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে বিআরটিএ। এতে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীর জন্য ৩৫ পয়সা বাড়িয়ে কিলোমিটারপ্রতি বাস ভাড়া নির্ধারণ করা হয় ২ টাকা ৫০ পয়সা।

এই সময় থেকেই বৃদ্ধিকৃত ভাড়ার চেয়েও অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠে এসেছে। গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলেও বিআরটিএ, বাস মালিক সমিতি যে পদক্ষেপ নিচ্ছে সেটিকে ‘লোক দেখানো’ বলছেন বাসযাত্রীরা।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি