1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১২:০০ অপরাহ্ন

কমলাপুরে ট্রেনের টিকিট শেষ

রিপোর্টার
  • আপডেট : শুক্রবার, ৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪৩ বার দেখা হয়েছে

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার প্রতিবাদে হঠাৎই গণপরিবহন বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে সাধারণ মানুষ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজে ভর্তি এবং একদিনে ২৬টি সরকারি চাকরি পরীক্ষা ছাড়াও নানা গুরুত্বপূর্ণ কাজে রাজধানীতে এসে আটকা পড়েছেন বহু মানুষ।

পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটের কারণে শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সারাদেশে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ। তাই বিকল্প পথ হিসেবে জরুরি প্রয়োজনে ঢাকার বাইরে যেতে অনেকে কমলাপুর রেল স্টেশনে ভিড় করেন।

কিন্তু যাত্রীদের চাপে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট পাচ্ছেন না অনেকে। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন এসব যাত্রী। বেশি বিপাকে পড়েছেন ভর্তি পরীক্ষাসহ বিভিন্ন চাকরির জন্য আসা পরীক্ষার্থীরা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে চাকরির পরীক্ষা দিতে এসেছিলেন শাহিদ খান। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) রাতে ঢাকায় এসে এক বন্ধুর মেসে ছিলাম। আজ পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি যেতে হবে। কিন্তু বাস চলছে না। তাই ট্রেন স্টেশনে এসেছিলাম। কিন্তু ট্রেনের টিকিট পেলাম না।

জরুরি প্রয়োজনে সিলেট যাবেন আতাউর রহমান। কয়েক ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে তিনিও টিকিট পাননি। বাধ্য হয়ে বাসার দিকে হাঁটা দেন তিনি। শুধু শাহিদ খান বা আতাউর রহমানই না, গণপরিবহন বন্ধ থাকায় এমন শত শত মানুষ কমলাপুর রেলস্টেশনে এসে টিকিট পাননি। তবে যারা টিকিট পাচ্ছিলেন, তাদের বেশ উচ্ছ্বসিত দেখা গেছে।

কমলাপুর রেলস্টেশনের স্টেশন ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে জানান, অন্য ছুটির দিনের তুলনায় আজ যাত্রীদের বেশি চাপ ছিল। সাধারণত শুক্রবার এত যাত্রী থাকেন না। মূলত গণপরিবহন বন্ধ থাকার কারণে রেলের ওপর চাপ পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে দাঁড়িয়ে যাওয়া যাত্রীদের টিকিট বিক্রি বন্ধ রয়েছে। এত মানুষ আরও বেশি ভোগান্তিতে পড়েছে। তবে যেসব যাত্রীর ঘরে ফেরা খুবই জরুরি, তাদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থায় টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি