1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৪:৫৫ অপরাহ্ন

ট্রাম্পের বিজ্ঞাপনে আমার বক্তব্য বিকৃত করা হয়েছে: ফাউচি

রিপোর্টার
  • আপডেট : সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৫৪ বার দেখা হয়েছে
ট্রাম্পের বিজ্ঞাপনে আমার বক্তব্য বিকৃত করা হয়েছে: ফাউচি
ফাউসি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউচি বলেছেন, অনুমতি ছাড়াই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনি বিজ্ঞাপনে তার পুরনো একটি বক্তব্যের অংশবিশেষ বিকৃতভাবে ব্যবহার করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে স্বনামধন্য এই বিজ্ঞানী বলেছেন, অপ্রাসঙ্গিকভাবে তার ওই ভিডিওক্লিপকে কাটছাঁট করে বিজ্ঞাপনে বসানো হয়েছে যা চরম বিভ্রান্তিকর।

গত সপ্তাহে প্রকাশিত ডোনাল্ড ট্রাম্পের পুনঃনির্বাচন ক্যাম্পেইনের ওই বিজ্ঞাপনে অ্যান্থনি ফাউচি’র ৩০ সেকেন্ডের একটি পুরাতন (মার্চে ধারণকৃত) ভিডিও ফুটেজ ব্যবহার করা হয়েছে। সেখানে তাকে বলতে দেখা গেছে, করোনা মোকাবিলায় তারা যে ভূমিকা রেখেছেন তা অনন্য।

এ ব্যাপারে রবিবার (১১ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে অ্যান্থনি ফাউচি বলেছেন, নির্বাচনি বিজ্ঞাপনে ট্রাম্প কোনও যোগসূত্র ছাড়াই তার বক্তব্য অপ্রাসঙ্গিক ও খণ্ডিতভাবে ব্যবহার করেছেন। আসলে তিনি হোয়াইট হাউসের অনন্য ভূমিকার কথা বলেননি। বলেছিলেন জনস্বাস্থ্যকর্মীদের অনন্য ভূমিকার কথা।

‘আমি প্রায় পাঁচ দশক জনসেবায় কাজ করছি, কিন্তু কখনই কোনও রাজনৈতিক প্রার্থীকে প্রকাশ্যে সমর্থন করি নি। জিওপি (রিপাবলিক ন্যাশনাল কমিটি) প্রচারের বিজ্ঞাপনে আমার অনুমতি ব্যতীত প্রসঙ্গের বাইরে আমার কিছু পুরনো বক্তব্য কাটছাঁট করে ব্যবহার করা হয়েছে; যা আদতে ছিল কয়েক মাস আগের একটি বিস্তারিত মন্তব্যের অংশবিশেষ, যেখানে আমি জনস্বাস্থ্য কর্মীদের ভূমিকার কথা বলেছিলাম।’

মার্চে ধারণ করা ফক্স নিউজে যে সাক্ষাৎকার ফাউচি দিয়েছেন, সেখানে তিনি বলেছিলেন, ‘আমি করোনাভাইরাসের এই প্যানডামিককে প্রায় পুরো সময়টাই ব্যয় করে চলেছি। আমি প্রায় প্রতিদিনই হোয়াইট হাউসে যাচ্ছি। সুতরাং আমি কল্পনাও করতে পারি না যে কোনও পরিস্থিতিতে যে কেউ (জনস্বাস্থ্য কর্মীরা) আরও কিছু করতে পারে।’

প্রসঙ্গত, ১৯৮৪ সাল থেকে অ্যান্থনি ফাউচি যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসের (এনআইএআইডি) পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণের প্রাথমিক অবস্থায় তিনি হোয়াইট হাউজের করোনা টাস্কফোর্সের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। পরবর্তীতে, প্রেসিডেন্টের সঙ্গে মতবিরোধের জের ধরে ওই টাস্কফোর্স বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

 

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি