1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
করোনায় আরও ৩৫ মৃত্যু, শনাক্ত ১,১৯০ পাকিস্তান ক্রিকেটকে খুন করল নিউজিল্যান্ড : শোয়েব আক্তার সংবিধানের আলোকেই আগামী দিনের নির্বাচন : কৃষিমন্ত্রী মাস্ক ছাড়াই যুক্তরাজ্যের মন্ত্রিসভার বৈঠক গ্রহণযোগ্য পন্থায় নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে : ওবায়দুল কাদের জলবায়ু নিয়ন্ত্রণে বিশ্ব নেতাদের প্রতি বাইডেনের আহ্বান মা হচ্ছেন কাজল চীন থেকে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা মোদির জন্মদিনে রেকর্ড দুই কোটি টিকা প্রয়োগ ভারতের শিক্ষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন ঠাকুরগাঁও জেলা জাতীয় ছাত্র সমাজের আলোচনা ও পরিচিতি সভা মাহফুজ আনাম ও শাহীন আনামের কুশপুত্তলিকা দাহ হিন্দু মহাজোটের ই-কমার্সের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা : ডিএমপি প্রধান চীন থেকে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৬০

নকশা ছাড়াই ভবন বানিয়ে ফেলেছে এফবিসিসিআই

বিশেষ প্রতিবেদন
  • আপডেট : বুধবার, ৫ মে, ২০২১
  • ১৩১ বার দেখা হয়েছে
নকশা ছাড়াই ভবন বানিয়ে ফেলেছে এফবিসিসিআই
পুরান ঢাকার হাটখোলায় এফবিসিসিআই ভবন

নকশা অনুমোদন না করেই পুরান ঢাকার হাটখোলায় বহুতল ভবন নির্মাণ করেছে দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। সে কারণে দীর্ঘদিন ধরে ভবনটি ব্যবহার করা যাচ্ছে না।

এফবিসিসিআইয়ের নতুন লোগো ও সংস্কার করা মতিঝিলের ফেডারেশন ভবনের (নতুন নাম এফবিসিসিআই আইকন) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আজ বুধবার সংগঠনের সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, ‘হাটখোলার ভবনটি তিন বছর ধরে পড়ে আছে। কারণ, ভবনটির নকশা পাস করা ছিল না। আমরা সম্প্রতি নকশা পাস করেছি।’ তিনি আরও জানান, মতিঝিলের ভবনের মালিকানা এখনো এফবিসিসিআইয়ের নামে নেই। মালিকানা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। শিগগিরই কাজটি হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১২ সালের ৭ মে ১৪ দশমিক ৪৩ কাঠা জমির ওপর ১৩ তলা এফবিসিসিআই ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনতলার বেসমেন্টসহ (১৬ তলা) ভবনটির নির্মাণ ব্যয় ছিল ৩৬ কোটি টাকার বেশি। আর নির্মাণের দায়িত্বে ছিল ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেড (এনডিই)।

অনলাইনে আজ এফবিসিসিআইয়ের নতুন লোগো ও সংস্কার করা এফবিসিসিআই আইকন ভবনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। এ সময় অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন সংগঠনটির সাবেক সভাপতি মাহবুবুর রহমান, মীর নাসির হোসেন, এ কে আজাদ, আবদুল মাতলুব আহমাদ, শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন প্রমুখ।

হাটখোলায় এফবিসিসিআই ভবন নিয়ে শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, ‘ক্ষমতায় থাকলে আইনকানুন তোয়াক্কা না করার প্রবণতা রয়েছে। নকশা পাস না করে ভবন নির্মাণ করা আমাদের গাফিলতি। ৪ কোটি ১৭ লাখ টাকা দিয়ে জমি কেনার পরও আমরা হাতিরঝিলে বিজিএমইএ ভবন হারিয়েছি। ইপিবির কাছ থেকে জমি কেনার পর নিবন্ধনের সময় দেখা গেল তারা মালিক নয়। মূল মালিক বাংলাদেশ রেলওয়ে ইপিবিকে জমি কাগজে–কলমে লিখে দেয়নি।’

এফবিসিসিআইয়ের মূল সমস্যা দুটি বলে উল্লেখ করেন এ কে আজাদ। তিনি বলেন, প্রথম সমস্যা সংগঠনের নিজস্ব কোনো আয় নেই। আরেকটি হচ্ছে, আমরা ব্যবসায়ীরা এক জায়গায় সবাই বসে বৈঠক করতে পারি না। পূর্বাচলে বড় একটা জায়গা বরাদ্দ নেওয়া দরকার বলে মনে করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, নিজেদের খামখেয়ালির জন্য নিজেদের ক্ষতি করছি। নকশা অনুমোদন না করে ভবন করি। তিনি এফবিসিসিআইয়ের বর্তমান পর্ষদের প্রশংসা করে বলেন, অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশ বর্তমানে যেখানে আছে এফবিসিসিআইকে সেখানে আনার দরকার ছিল। সেই কাজটি করেছেন শেখ ফজলে ফাহিম। তিনি বলেন, অর্থনীতির আয়তন বাড়ছে। সংগঠনও বাড়ছে। তাই এফবিসিসিআইয়ে কাঠামোগত সংস্কার দরকার।

সূত্র : প্রথম আলো

 

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি