1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
  3. [email protected] : lalashimul :
বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ০৪:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ফের ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানী ৭ দিনের রিমান্ডে শেষ কার্যদিবসে সূচকের মিশ্র প্রবণতায় চলছে লেনদেন শ্রমিক হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ও খাদ্যের দাবিতে বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়নের বিক্ষোভ যারা এতিমদের পুঁজি করে ব্যক্তিস্বার্থ চরিতার্থ করেন তারা অবশ্যই পাপী : মনোরঞ্জন শীল গোপাল নিজগৃহে “পরবাসী” দৃষ্টিপ্রতিবন্দী শান্ত  বাঁশখালীতে নিহত শ্রমিকদের পরিবারকে ৩ কোটি টাকা করে দিতে রিট প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগে প্রস্তুতি নেবেন যেভাবে প্রতিষ্ঠানের নামে সঞ্চয়পত্র বিক্রি করতে পারবে না ব্যাংক-পোস্ট অফিস করোনা রোগী বাড়লে আর সামাল দেওয়া সম্ভব হবে না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী ৬ মেয়ের দায়িত্ব কাঁধে, তাই সাইকেল চালিয়ে দুধ বিক্রি করেন এই ৬২ বছরের বৃদ্ধ মহিলা

পুরুষের যেভাবে কাপড় পরা হারাম

রিপোর্টার
  • আপডেট : রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৯০ বার দেখা হয়েছে

ধর্ম ডেস্ক : অহংকার প্রকাশ করে এমন সব কাজই নারী-পুরুষ উভয়ের জন্য হারাম বা নিষিদ্ধ। তা পোশাক পরাসহ প্রসাধনীর ব্যবহার ও অন্যান্য বিষয়েও হতে পারে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পুরুষদের জন্য টাখনুর নিচে কাপড় পরাকে নিষিদ্ধ করেছেন। একাধিক হাদিসে এভাবে কাপড় পরার ভয়াবহ শাস্তির কথা উল্লেখ করেছেন।
টাখনুর নিচে ঝুলিয়ে কাপড় পরার ব্যাপারে বিশেষভাবে সতর্ক করেছেন। ঝুলিয়ে কাপড় পড়া নিষিদ্ধের অন্যতম কারণ হলো- এতে মানুষের মাঝে অহংকার প্রকাশ পায়। আর মানুষের জন্য অহংকার করাকে আল্লাহ তাআলা হারাম করেছেন। হাদিসে এসেছে-
হজরত জাবের ইবনে সুলাইম রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘টাখনুর নিচে ঝুলিয়ে কাপড় পরার ব্যাপারে সাবধান হও। কারণ, তা অহংকারের অন্তর্ভুক্ত। আর আল্লাহ অহংকার করাকে পছন্দ করেন না।’ (আবু দাউদ)
পায়ের গোড়ালির নিচে ঝুলিয়ে কাপড় পরা ব্যক্তির দিকে মহান আল্লাহ ফিরে তাকাবেন না বলেও ঘোষণা করেছেন বিশ্বনবি। হাদিসে এসেছে-
হজরত আবু যর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‌কেয়ামতের দিন আল্লাহ তাআলা ৩ ব্যক্তির সঙ্গে কথাও বলবেন না আর তাদের দিকে ফিরেও তাকাবেন না। এমনকি তাদের গোনাহ থেকেও পবিত্র করবেন না। বরং তাদের জন্য রয়েছে কঠোর শাস্তি।
আমি জিজ্ঞাসা করলাম, তারা কারা? কাজেরে কো এর ধ্বংস। তাদের মুক্তির কোনো পথ নেই। (কেননা) রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ কথাটি ৩বার বলেছেন। তারা হলো-
– যে ব্যক্তি পায়ের গোড়ালির নিচে কাপড় (লুঙ্গি/প্যান্ট/পাজামা) ঝুলিয়ে পরে।
– যে ব্যক্তি মিথ্যা কসম/শপথ করে ব্যাবসার পণ্য বিক্রয় করে।
– যে ব্যক্তি উপকার করার পর আবার খোঁটা দেয়।’ (মুসলিম, তিরমিজি, আবু দাউদ ও ইবনে মাজাহ)
গোড়ালির নিচে ঝুলিয়ে কাপড় পরার শাস্তি
দুনিয়াতে যে বা যারা অহংকার প্রকাশ করতে গিয়ে গোড়ালির নিচে কাপড় ঝুলিয়ে পরবে। তাদের সঙ্গে পরকালে আল্লাহ শুধু কথা বলবেন না বা তাদের পবিত্র করবেন এমনটিই নয়, বরং তাদের গোড়ালির নিচের আবৃত অংশ জাহান্নামের আগুন জলতে থাকবে। হাদিসে এসেছে-
হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘লুঙ্গির (পাজামা/প্যান্ট) যে অংশ (পুরুষের পায়ের) গোড়ালির নিচে থাকবে তা আগুনে জলবে।’ (বুখারি)
অন্য বর্ণনায় এসেছে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, পুরুষের শরীরের যে কোনো পোশাক (লুঙ্গি, প্যান্ট, পাজামা, পাঞ্জাবি, জুব্বা) টাখনু বা পায়ের গোড়ালির নিচে ঝুলে পড়া হারাম তথা নিষিদ্ধ। পোশাক যদি টাখনুর নিচে ঝুলে যায়, তবে টাখনুর নিচের ঐ অংশকে জাহান্নামের অংশ বলে ধরা হয়।’ (বুখারি)
সুতরাং মুমিন মুসলমান পুরুষদের উচিত, পায়ের গোড়ালি বা টাখনুর নিচে যে কোনো কাপড় পরা থেকে বিরত থাকা আবশ্যক। কেননা এ কাজের ভয়াবহ শাস্তির ঘোষণা এসেছে হাদিসে। তাই পুরুষের জন্য লুঙ্গি, পাজামা, প্যান্ট, জুব্বাসহ যে কোনো পোশাকই টাখনুর উপরে পরা জরুরি।
আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে হাদিসের নির্দেশনা মেনে পোশাক পরার ক্ষেত্রে হারাম কাজ থেকে বেঁচে থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি