1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
  3. [email protected] : lalashimul :
সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৬:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ভাড়া না থাকায় বাস থেকে ছুড়ে ফেলা হলো প্রতিবন্ধী নারীকে (ভিডিও) গোবিন্দগঞ্জে সাবেক এমপি সহ জামিন পেলেন ৩৩ আসামী নিবন্ধনধারী শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের নির্দেশ সেন্টমার্টিনে কোস্ট গার্ড এর অভিযানে ইয়াবা ও কাঠের নৌকাসহ ০৫ মাদক পাচারকারী আটক নড়াইলে ৬০ বছরের বৃদ্ধের লালসার শিকার হয়েছে এক স্কুলছাত্রী ; বৃদ্ধ আটক আন্দোলন-বক্তব্য নয় বরং যোগ্যতায় নারীদের অধিকার আদায় করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলার আসামি রিমান্ডে লাইফ সাপোর্টে চিত্রনায়ক শাহীন আলম বিএনপির জনবিচ্ছিন্ন আন্দোলনকে আওয়ামী লীগ ভয় পায় না: কাদের ‘ভয়ঙ্কর শক্তি কাজ করছে’-ফখরুলের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন কাদের

প্রতারণার মামলায় কারাগারে উপস্থাপক-নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাস

রিপোর্টার
  • আপডেট : বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ৯৯ বার দেখা হয়েছে

আদালত প্রতিবেদক :
২০১৭ সালে করা একটি প্রতারণার মামলায় উপস্থাপক ও নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাসকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান নূর তাঁর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে এ আদেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আসামি দেবাশীষ বিশ্বাসের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি থাকায় এদিন দুপুরে আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন তিনি। আদালত তাঁর আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, সিএনটিভি ইউটিউব চ্যানেলের মালিক লিটন সরকার ইমন নামের এক ব্যক্তি দেবাশীষ বিশ্বাসের মা গায়ত্রী বিশ্বাস প্রযোজিত চারটি বাংলা চলচ্চিত্র—‘মায়ের মর্যাদা’, ‘শুভ বিবাহ’, ‘অপেক্ষা’ ও ‘অজান্তে’ ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করতে ৬০ বছরের জন্য ১ লাখ ৪০ হাজার টাকায় ২০১৯ সালের ৩০ জুলাই বাণিজ্যিক শর্তে কিনে নেন।

তিনি ছবিগুলো ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করলে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ চ্যানেল বন্ধ করে দেয়। পরে তিনি খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, এই চার চলচ্চিত্র আসামিরা তার আগেই ২০১৭ সালে অন্য দুজন ব্যক্তির কাছে বিক্রি করেন। যার কারণে ইউটিউব চ্যানেল কর্তৃপক্ষ ছবিগুলো আপলোড করার পর লিটন সরকার ইমনের চ্যানেল বন্ধ করে দেয়।
এরপরই ২০১৯ সালের ৮ সেপ্টেম্বর সিএমএম আদালতে লিটন সরকার ইমন বাদী হয়ে দেবাশীষ বিশ্বাস ও তাঁর মায়ের নামে প্রতারণার মামলা করেন। পরে আদালত এ বিষয়ে মিরপুর রূপনগর থানাকে তদন্তের নির্দেশ দেয়। তদন্ত কর্মকর্তা ও রূপনগর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. মোকাম্মেল হোসেন তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে মর্মে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

আদালত প্রতিবেদন আমলে নিয়ে ২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর আসামিদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করেন। আসামিরা হাজির না হওয়ায় চলতি বছর ২১ অক্টোবর বাদীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ারা জারি করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি