1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
  3. [email protected] : lalashimul :
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ মামলায় আল মামুনের বিরুদ্ধে চার্জশিট, নুরসহ ৫ জনকে অব্যাহতি ময়মনসিংহে ছাত্রদলের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আহত ২৬ বিএনপি কথামালার আড়ালে জনবিরোধী এক ধ্বংসাত্মক অপশক্তির পৃষ্ঠপোষক : কাদের আলতাফ হোসেন চৌধুরীর মৃত্যুতে বৃহত্তর নোয়াখালী কর্মকর্তা ফোরামের শোক পাকিস্তানে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত অনলাইনে শ্রেণিপাঠ দেওয়ার জন্য ডেডিকেটেড টিভি চ্যানেলের কথা ভাবছে সরকার: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী মার্চেই শুরু হবে পাতালরেলের কাজ ‘প্রয়োজনে পরীমনিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে’ : ডিবি বামনডাঙ্গা রেলস্টেশনের শতবর্ষী গাছ কর্তন করে ২০ লাখ টাকা আত্নসাত করার অভিযোগে প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা উত্তর কোরিয়ার খাদ্য সংকটের কথা স্বীকার করলেন কিম জং উন

প্রধানমন্ত্রীর উপহার নতুন ঘর পেয়ে গাইবান্ধার গৃহহীন ভূমিহীনদের মধ্যে আনন্দের বন্যা

লিটন মিয়া লাকু
  • আপডেট : বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১১৪ বার দেখা হয়েছে

গাইবান্ধা প্রতনিধি : মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার নতুন ঘর পেয়ে গাইবান্ধার গৃহহীন ভূমিহীনদের মধ্যে আনন্দের বন্যা বইছে। তারা আনন্দ উচ্ছ¡াসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
জানা গেছে, গাইবান্ধা জেলার সাতটি উপজেলার ৮৪৬টি গৃহহীন ও ভ‚মিহীন পরিবারের জন্য গৃহ নির্মাণে ১৪ কোটি ৪৬ লাখ ৬৬ হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়। বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে গাইবান্ধা সদর উপজেলায় ১০৫টি, সুন্দরগঞ্জে ২৭২টি, গোবিন্দগঞ্জে ১২০টি, সাদুল্লাপুরে ১৭৯টি, ফুলছড়িতে ৭৫টি, সাঘাটায় ৩৫টি ও পলাশবাড়ীতে ৬০টি গৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়াও গাইবান্ধা সদর, সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায় নবনির্মিত ৪টি ব্যারাকে ২৮০টি ভুমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসন করা হয়েছে। দুই কক্ষ বিশিষ্ট আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত রঙিন টিনের দোচালা ও সেমিপাকা ঘর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা।
গত ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর আশ্রায়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় নির্মিত ‘স্বপ্ননীড়’ এর চাবি পেয়েছেন ভ‚মিহীন-গৃহহীন গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের পচারবাজার এলাকার গুচ্ছগ্রামের আঞ্জুয়ারা বেগম। অভাব অনটনের সংসারে অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে নিজ বাড়ি বানানোর কথা শুধুই স্বপ্ন ছিলো আঞ্জুয়ারার জীবনে। কিন্তু তার সেই স্বপ্ন প‚রণ করে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে সব ভ‚মিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে সরকারের পক্ষ থেকে ঘর দেয়ার প্রতিশ্রæতির অংশ হিসেবে শুধু মাথা গোঁজার ঠাঁই নয় নিজের নামে দুই শতক জমিও পেয়েছেন আঞ্জুয়ারা। নিজের নামে জমির দলিল ও ঘরের কাগজ পেয়ে আনন্দ-উচ্ছাসে তার চোখে মুখে যেন আলোর রোশনাই। আঞ্জুয়ারার মত ভুমিহীন গৃহহীন ২৩টি পরিবার ঠাঁই পেয়েছে ২৩টি সারিবদ্ধ ঘর ও সংলগ্ন ২ শতক জমি।
এছাড়াও বিধবা মালেকা বেগম বলেন, ‘স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারিনি যে জমিসহ আধাপাকা নতুন ঘর পাবো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ঘর উপহার দিয়েছেন। এখন থেকে আমি পাকাঘরে থাকতে পারবো। আমি ভীষণ খুশি ঘর পেয়ে। অনেক দোয়া করি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি