1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১২:১২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
মাকে রাস্তায় ফেলে দিলেন প্রতিষ্ঠিত সন্তানরা! নিরাপদ সড়কের জন্য সরকারের নির্বাচনী অঙ্গীকার বাস্তবায়নের দাবী সোনাগাজীর থাকখোয়াজ লামছি মৌজার তিন ফসলী জমি অধিগ্রহণ করা হবে না – ফেনী জেলা প্রশাসক বেগমগঞ্জ উপজেলা ১৬ টি ইউনিয়ন মধ্যে ১৪ টি ইউনিয়ন নির্বাচনে সব জায়গায় উৎসাহ উদ্দীপনা চৌমুহনীতে মন্দিরে হামলার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৮0 নুসরাতের ৩ সঙ্গীকে খুঁজছে পুলিশ রোনালদোর গোলে ইউনাইটেডের জয় ফেসবুক-টুইটারে নিষিদ্ধ, নতুন সোশ্যাল মিডিয়া চালুর ঘোষণা ট্রাম্পের বিশ্বে করোনায় আরও সাড়ে হাজার মানুষের মৃত্যু ইকবালকে পাগল দাবি করে যা বলছে তার পরিবার ফের প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দিল বায়ার্ন আজ পূর্বাচলে প্রদর্শনী কেন্দ্রের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ‘ডিসেম্বরের মধ্যেই টীকার লক্ষ্যমাত্রার অন্তত পঞ্চাশ ভাগ পূরণ করা হবে’ ২০২১ সালে সাড়ে ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন: অর্থমন্ত্রী দেশে ফের করোনা বাড়ছে: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

বাহুবলে মাদক ব্যবসায়ীর হামলার শিকার গৃহবধূ, পুলিশ সুপার বরাবরে অভিযোগ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
  • আপডেট : রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১১০ বার দেখা হয়েছে

বাহুবলে মাদক ব্যাবসার প্রতিবাদ করায় এক গৃহবধুকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে এক দুবৃত্ত। গুরতর আহত অবস্তায় তাকে প্রথমে বাহুবল স্বাস্হ্য কমপ্লেক্স পরে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল ও সিলেট উসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।এ ঘটনার পর মাদক ব্যাবসায়ী কবল থেকে এলাকার যুব সমাজকে বাচাতে পুলিশ সুপার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ওই উপজেলার ৫ নং লামাতাশি ইউনিয়নের তারাপাশা গ্রামে মৃত আহমদ আলীর পুত্র আব্দাল মিয়া নামে এক ব্যাক্তি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মদ,গাঁজা,ও নেশা জাতীয় দ্রব্য সেবন ও বিক্রি করে আসছে।যার ফলে এলাকার যুব সমাজ ধ্বংশের পথে।স্হানীয় মানুষ প্রতিবাদ করলে উল্টো তাদের অত্যচার নির্যাতন করতে থাকে।আব্দাল মিয়া গ্রামের একদল যুবকদের নিয়ে গড়ে তুলেছে মাদকের আস্তানা।এতে করে এলাকায় অসামাজিক কার্যকলাপ সহ চুরি চিন্তাই বৃদ্বি পেয়েছে।গত ৬ ফেব্রয়ারী আব্দালের প্রতিবেশী রফু মিয়ার স্ত্রী খায়রুন্নেছা (৩৮) বিষয়টির প্রতিবাদ করলে তাকে অতর্কিত ভাবে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।পরে তার শোর চিৎকারে স্হানীয় লোকজন এসে উদ্ধার করে বাহুবল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল নিয়ে যায়।সেখানে চিকিৎসার কোন উন্নতি না হওয়ায় আশংকাজনক অবস্তায় সিলেট উসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে খায়রুল নেছা মৃত্যু পথযাত্রি তার প্রতিবন্দী মেয়ে ও ছোট বাচ্চাদের নিয়ে বিপাকে পড়েছেন তার স্বামী পেরালাইসেস রোগী রফু মিয়া।
গ্রামের স্থানীয় জন সাধারনরা মাদক বন্ধ ও গ্রামের যুব সমাজ ধ্বংস কবল থেকে বাচাঁনোর জন্য ইউ/ পি মেম্বারের মাধ্যমে হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার বরাবরে এক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। একই সাথে অনুলিপিটি প্রশাসনিক বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরন করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি