1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ঢাকা টেস্টের দলে চমক যেসব নৌপথে সমস্যা সেগুলো ড্রেজিং করা হবে: নৌপরিবহণ প্রতিমন্ত্রী ১৫ মিনিটের জন্য ৫ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিচ্ছেন আলিয়া এইচএসসি পরীক্ষা আয়োজনে নতুন ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে শঙ্কা দীপুর মনির জনগণের করের টাকার অপচয় বন্ধ করতে হবে: আইনমন্ত্রী পাঁচ পৌরসভার ভোট ১৬ জানুয়ারি টাঙ্গাইল-৭ আসনের উপ-নির্বাচন ১৬ জানুয়ারি ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ৬৯ জন হাসপাতালে ভর্তি ‘নো ভ্যাকসিন, নো সার্ভিস’ একদিনে ১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৭৩ ওমিক্রন : ভারতের লাল তালিকা থেকে বাদ বাংলাদেশ রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশকে অব্যাহত সমর্থন দেবে জাতিসংঘ ‘আফ্রিকা থেকে আসা ২৪০ জনের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না’ বিদ্রোহীদের ওপর ভর করে হানাহানিতে বিএনপি : কাদের ঢাকা উত্তরের ছাত্রলীগ সভাপতিকে অব্যাহতি

মেয়েকে ধর্ষণ করায় বাবার যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১২১ বার দেখা হয়েছে

রাজধানীর বাড্ডায় নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলায় বাবা কামাল হোসেনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে তাকে।
মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহার এ রায় ঘোষণা করেন।
মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ৮-৯ বছর আগে ভুক্তভোগীর বাবা-মায়ের ডিভোর্স হয়। এরপর ভুক্তভোগী তার দাদির কাছে থাকত। ডিভোর্সের পর লিপি বেগম নামে আরেকজনকে বিয়ে করেন আসামি। ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে ভুক্তভোগীকে তার বাবা রূপনগর আবাসিক এলাকার বস্তিতে নিয়ে যান। এ নিয়ে তার সৎমায়ের সঙ্গে বাবার ঝগড়া হয়। পরে একই বছরের ২ মে ভুক্তভোগীকে নিয়ে তার বাবা বাড্ডার আব্দুল্লাহবাগ এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নেন। ওই বছরের ৪ ও ৫ মে আসামি কামাল হোসেন ভুক্তভোগীকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় মামলা করেন।

মামলার পর কামাল হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৬ মে আদালত তার দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষে ৯ মে কামাল হোসেন ধর্ষণের দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গত বছরের ১২ অক্টোবর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বাড্ডা থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) আল-ইমরান আহম্মেদ আসামি কামাল হোসেনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এরপর ২০২০ সালের ১২ অক্টোবর আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। মামলায় আটজন সাক্ষীর মধ্যে বিভিন্ন সময়ে ছয়জন সাক্ষ্য দেন।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি