1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
  3. [email protected] : lalashimul :
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৯:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
টিকা নিয়ে করোনাকে জয় করার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হাসপাতালে জায়গা নেই, হোটেল খুঁজছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মেক্সিকোকে উড়িয়ে ফাইনালে ব্রাজিল আড়াই বছরে ১৭ এমপির মৃত্যু বিধিনিষেধ বাড়ল আরও ৫ দিন দেশে প্রত্যেকটি মানুষ সুন্দর ও উন্নত জীবন পাবে: প্রধানমন্ত্রী ১১ আগস্ট থেকে দোকানপাট খুলছে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর পেছাল ১৮ মাস হবিগঞ্জ সায়েস্তাগঞ্জ রোডে রতনপুর নামক স্হানে কার মটরসাইকেলে সংঘর্ষে ঠাকুরগাঁওয়ে গড়েয়া হাট পাহাড়াদারদের মাঝে পোশাক সামগ্রী বিতরণ বিধিনিষেধ আরো বাড়ল চাহিদা বেড়েই চলেছে অস্ট্রেলিয়ার গণপরিবহন ছাড়া চলছে সবই একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী ‘সিরিজ বাতিল হয়নি, ইংল্যান্ডের সঙ্গে আলোচনা চলছে’

রাজধানীতে মুভমেন্ট পাসে চলছে চলাচল, মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৪৮ বার দেখা হয়েছে

আজ বুধবার থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত সর্বাত্মক লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আগের লকডাউন ছিল ঢিলেঢালা এবং মানুষের চলাচল নিয়ন্ত্রণে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে কঠোর অবস্থানে দেখা যায়নি। তবে এবার শুরু থেকেই বলা হয়েছিল, কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। জরুরি প্রয়োজনে বের হওয়ার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে দেওয়া মুভমেন্ট পাস নিয়ে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য চলাচল করা যাবে।

যে কোনো বাহনকেই থামিয়ে প্রয়োজন এবং চলাচলের অনুমতি দেখতে চাচ্ছে পুলিশ
              যে কোনো বাহনকেই থামিয়ে প্রয়োজন এবং চলাচলের অনুমতি দেখতে চাচ্ছে পুলিশ

মো. সজীব হোসেন একটি বহুজাতিক কোম্পানির ডিলারের অধীনে কাজ করেন। বাটা সিগন্যাল মোড়ে পুলিশ তাঁকে আটকে দেয়। ওই বহুজাতিক কোম্পানির ডিলারদের চলাচলের পাস থাকলেও তাঁর জন্য নেই। তাই তিনিও বিপদে পড়েছেন। বাটা সিগন্যাল মোড়ে দায়িত্বরত সার্জটন্ট সাইফুল বলেন, প্রত্যেককেই পাস দেখাতে হচ্ছে। প্রয়োজনের বাইরে কাউকে চলাচল করতে দেওয়া হচ্ছে না।

পাস বা কোনো অনুমতিপত্র না থাকলে তাদের ফেরতও পাঠানো হচ্ছে। শাহবাগ মোড়ে শাহবাগ থানার সাব ইন্সপেক্টর মো. নাছির উদ্দিন খান মোড়ের এক পাশে রাখা মোটরসাইকেল দেখিয়ে বললেন, একজন কোনো কিছু দেখাতে পারেননি। তাই মোটরসাইকেল রেখে কাগজ আনতে গিয়েছেন।

রাজধানীর শাহবাগ, কারওয়ান বাজার, সায়েন্সল্যাব, ফার্মগেটসহ বিভিন্ন এলাকার মোড়গুলোতে পুলিশের তৎপরতা দেখা যাচ্ছে। প্রিন্ট কপি বা মোবাইলে মুভেমন্ট পাসে দেখিয়ে অনেককেই চলাচল করছেন। সড়কে কিছু ব্যক্তিগত যান, মোটরসাইকেল, রিকশা ও পণ্য পরিবহনের পিকআপ ও ট্র্যাক ছাড়া অন্য কোনো বাহনের দেখা মেলেনি। পয়লা বৈশাখের ছুটির দিন হিসেবেও মানুষের চলাচল কম।

মিরপুর এলাকায় লকডাউনে চলাচলে পুৃলিশি চেকপোস্ট।
      মিরপুর এলাকায় লকডাউনে চলাচলে পুৃলিশি চেকপোস্ট।

মিরপুরের ১, ২ ও ১০ নম্বর, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া, পাইকপাড়া, গাবতলীতে পুলিশে চেকপোস্ট বসেছে। যানবাহনের সংখ্যা কম। যৌক্তিক কারণ না দেখাতে পারলে পুলিশ তাদের ফেরত পাঠাচ্ছে। কোথাও কোথাও মামলা ও জরিমানাও করা হচ্ছে।

মো. আলী নামের একজন সিএনজি অটোরিকশা চালক সকালে মিরপুর থানার সামনে পুলিশের চেকপোস্টে পড়েন। বের হওয়ার কোনা কারণ দেখাতে না পারায় তাঁকে ১২০০ টাকা জরিমানা করা হয়। মিরপুর থানা পরিদর্শক মেজবাহ উদ্দিন জানান, এখানে আরও ৫টি রিকশা জব্দ করা হয়েছে।

পাইকপাড়া চেকপোস্টে ছিলেন পুলিশের মিরপুর বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার কামাল হোসেন বলেন, মিরপুর বিভাগে ১১টি চেকপোস্ট ও ২টি মোবাইল কোর্ট রয়েছে। মুভমেন্ট পাস ও যৌক্তিক কারণ না দেখাতে পারলে তাদের ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি