1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:৫১ অপরাহ্ন

রাশিয়াজুড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ, আটক ১৩শ

রিপোর্টার
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৯ বার দেখা হয়েছে

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর রাশিয়ায় প্রথমবারের মতো সামরিক খসড়ার নতুন একটি আদেশ জারি করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ওই আদেশে ‘মাতৃভূমিকে রক্ষার জন্য’ রাশিয়ায় আংশিক সেনা সমাবেশের ঘোষণা দেন তিনি।

আর এরপরই রাশিয়াজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) থেকে ছড়িয়ে পড়া ওই বিক্ষোভে ১৩০০ জনের বেশি নাগরিককে আটক করেছে রুশ নিরাপত্তা বাহিনী। একটি মানবাধিকার গোষ্ঠীর বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘মাতৃভূমিকে রক্ষার জন্য’ রাশিয়ায় আংশিক সেনা সমাবেশের বিষয়ে পুতিনের ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে রাশিয়াজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে এবং বুধবার রাত পর্যন্ত দেশটির বিভিন্ন স্থানে ১৩১১ জনেরও বেশি মানুষকে আটক করে রুশ নিরাপত্তা বাহিনী।

প্রতিবাদ-বিক্ষোভ পর্যবেক্ষণকারী স্বাধীন গ্রুপ ওভিডি-ইনফো বলেছে, রাশিয়ার ৩৮টি শহর থেকে সংগ্রহ করা তথ্য অনুসারে বুধবার রাত পর্যন্ত ১ হাজার ৩১১ জনেরও বেশি লোককে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে মস্কোতে কমপক্ষে ৫০২ জন এবং রাশিয়ার দ্বিতীয় সর্বাধিক জনবহুল শহর সেন্ট পিটার্সবার্গে ৫২৪ আটক করা হয়েছে।

রাশিয়ায় প্রতিবাদ-বিরোধী আইনের অধীনে অনুমোদনহীন সমাবেশ বেআইনি। রাশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ইরিনা ভোল্ক এক বিবৃতিতে বলেছেন, (নিরাপত্তা বাহিনীর) কর্মকর্তারা ছোট ছোট বিক্ষোভ মঞ্চস্থ করার প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়েছে।

ভলককে উদ্ধৃত করে রুশ বার্তাসংস্থাগুলো জানিয়েছে, ‘বেশ কয়েকটি অঞ্চলে, অননুমোদিত ক্রিয়াকলাপ (বিক্ষোভ) করার চেষ্টা করা হলেও খুব কম সংখ্যক অংশগ্রহণকারী সেখানে একত্রিত হয়েছিল।’

তিনি আরও বলেন, ‘এসব বন্ধ করা হয়েছে। এবং যারা আইন লঙ্ঘন করেছে তদন্তের জন্য তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।’

বুধবার দেওয়া ভ্লাদিমির পুতিনের এই নির্দেশনার ফলে যারা কোনো একসময় রুশ সেনাবাহিনীতে কাজ করেছেন বা প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ভবিষ্যতে যেকোনো প্রয়োজনে সেনাবাহিনীর কাজে লাগবার জন্য, সেই সব রিজার্ভিস্টদের এখন যুদ্ধ করার জন্য ডেকে পাঠানো হবে।

প্রেসিডেন্ট পুতিনের পর বক্তব্য রাখতে গিয়ে বুধবার রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেন, ইউক্রেনে যুদ্ধের জন্য তিন লাখ রিজার্ভ সৈন্যকে তলব করা হবে। তিনি বলেন, এই সংখ্যাটি রাশিয়ার মোট আড়াই কোটি রিজার্ভ সৈন্যদের মাত্র এক শতাংশ।

পুতিনের এই ঘোষণার পর বুধবার থেকেই সৈন্য সমাবেশ শুরু হয়ে যাওয়ার কথা বলে জানিয়েছে বিবিসি।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি