1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
দলের হারে তোমায় কাঁদতেও তো দেখেছি: আনুশকা ষড়যন্ত্রকারীদের রুখে দিতে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী যৌথ অবকাঠামো ব্যবহার, বাংলালিংক-টেলিটক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর টাঙ্গাইল-৭ আসনের উপ-নির্বাচনে বিজয়ী শুভ শাবিপ্রবি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গেমিং অ্যাপ ‘আমার বঙ্গবন্ধু’ বিচারপতি টিএইচ খান আর নেই মানুষের জন্য কাজ করব বলে রাজনীতিতে এসেছি : শিক্ষামন্ত্রী বাংলাদেশকে সার্কুলার ইকোনমি মডেল অনুসরণ করতে হবে : শিল্পমন্ত্রী নাসিক নির্বাচনে আইভীর হ্যাটট্রিক জয় করোনায় আরও ৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৫,২২২ ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সরকার কাজ করছে : পরিবেশমন্ত্রী ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু বইমেলা ১ সপ্তাহে করোনা শনাক্ত ২২২ শতাংশ বেড়েছে: স্বাস্থ্য অধিদফতর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের কথা ভাবছি না : শিক্ষামন্ত্রী

লক্ষ্মীপুর বিসিক শিল্প নগরীতে ঘি কারখানা তালা ! শষী ভূষন নাথের বিরুদ্ধে মামলা

নজির আহম্মদ
  • আপডেট : বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৮৮ বার দেখা হয়েছে

লক্ষ্মীপুরঃ লক্ষ্মীপুর বিসিক শিল্প নগরীর চলমান একটি ঘি কারখানায় তালা দেওয়ার ঘটনায় আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী অঞ্চল (সদর) আদালতে প্লটের অংশীদার শষী ভূষন নাথের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে ভূক্তভোগী কারাখানার মালিক আলমগীর হোসেন সেলিম সাংবাদিকদের কাছে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বাদীর আইনজীবী রেজাউল করিম রাজু পাটওয়ারী বলেন, আদালতের বিচারক রায়হান চৌধুরী মামলাটি আমলে নিয়েছেন। ৩ জুনের মধ্যে ঘটনাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে গত ২২ মার্চ শষী ভূষন নাথ ওই কারখানার মূল ফটকসহ প্রত্যেকটি দরজায় তালা ঝুলিয়ে দেয়। এতে একমাসে প্রায় ৫-৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ভূক্তভোগী আলমগীর হোসেন জানিয়েছেন।

ভূক্তভোগী আলমগীর সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের চররুহিতা গ্রামের মৃত সামছুল ইসলামের ছেলে। অভিযুক্ত শষী ভুষন একই উপজেলার পশ্চিম লক্ষ্মীপুর গ্রামের খোয়া সাগর দীঘির পাড়র এলাকার মৃত গৌর সুন্দর নাথের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্র জানায়, লক্ষ্মীপুর বিসিক শিল্প নগরীর ৩৩ নম্বর প্লট রেজিস্ট্রিকৃত লিজ দলিল অনুযায়ী শষী ভূষন নাথ ও সুবীর কুমার নাথের মালিকানায় রয়েছে। ২০১০ সাল থেকে সেখানে কোকানাট অ্যান্ড এডিবল ইন্ডাস্ট্রিজ করে শষী ভূষন ব্যবসা করে আসছে। ব্যবসায় ক্ষতি হওয়ায় ২০১৬ সালে ২২ ডিসেম্বর ১৭ লাখ ৫০ হাজার টাকায় অংশীদারিত্ব বিক্রি করার জন্য আলমগীর হোসেনের সঙ্গে বায়না চুক্তি করা হয়। এজন্য বিভিন্ন সময় শষী ভুষনকে ৯ লাখ টাকা দেওয়া হয়। ওই কারখানা ৮ লাখ টাকা ব্যয়ে সংস্কার করে মেসার্স সুমাইয়া ফুড প্রোডাক্টস নামে ঘি’র ব্যবসা শুরু করে। চুক্তির কিছু দিনের মধ্যেই বাকি টাকা নিয়ে জমি আলমগীরের নামে রেজিস্ট্রি করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। বর্তমানে শষী ভূষন তার অন্য অংশীদার সুবীরের সঙ্গে যোগসাজসে আলমগীর থেকে কারখানাটি নিয়ে নেওয়া চেষ্টা করছে।এনিয়ে বিসিক শিল্প নগরী কর্তৃপক্ষ ও বিসিক শিল্প নগরী ব্যবসায়ীক সমিতির কাছে বিভিন্ন অভিযোগও করেছে তারা। এতে আলমগীর তার কাছ থেকে নেওয়া ৯ লাখ টাকা ও কারখানা সংস্কারের ৮ লাখ টাকা ফেরত চেয়েছে। কিন্তু শষী ভুষন দেবে না বলে জানিয়ে দেয়।

ভূক্তভোগী আলমগীর হোসেন বলেন, শষী ভুষন এখনো আমার অংশীদারিত্ব রেজিস্ট্রি করিয়ে দেয়নি। তিনি আমার সঙ্গে প্রতারণা করে আসছেন। ২২ মার্চ কারখানায় শষী ভূষন তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। এ ঘটনায় গত একমাসে আমার ৫-৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আমার থেকে কারখানা নিয়ে যাওয়ার পাঁয়তারা করা হচ্ছে। আমার অংশীদারিত্ব রেজিস্ট্রি করে দিতে হবে, তা না হলে আমার টাকা ফিরিয়ে দিতে হবে।

এ ব্যাপারে শষী ভূষন নাথ বলেন, প্লটে আমরা দুইজন অংশীদার রয়েছি। সুবীরে অংশটি বিক্রি করার জন্য আলমগীরের সঙ্গে বায়না চুক্তি হয়। গত ৫ বছরে তিনি আমাকে ৬ লাখ টাকা দিয়েছে। কারখানা সংস্কারে তিনি ২ লাখ টাকা ব্যয় করেছেন। পুরো টাকা না দেওয়ায় তাকে অংশীদারিত্ব রেজিস্ট্রি করে দেওয়া হয়নি। এখন সুবীরও অংশীদারিত্ব বিক্রি করতে চাচ্ছে না। ব্যবসায়িক সমিতির নির্দেশে আমি কারখানায় তালা দিয়েছি। আলমগীর অযৌক্তিক দাবি করায় তার টাকা দেবো না বলেছি।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি