1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
  3. [email protected] : lalashimul :
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৩:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ইসলামের ভ্রাতৃত্ব ও মূল্যবোধের সঠিক প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নানাবিধ পদক্ষেপ নিয়েছেন: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী কোম্পানীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ; আ.লীগের ১৬৩ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেন পুলিশ প্রস্তাবিত বাজেট তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনের অন্তরায়: প্রজ্ঞা বাংলাদেশে ভ্যাট নিবন্ধন নিল ফেসবুক ঝিনাইদহ থেকে ডাকাতি হওয়া পাটভর্তি ট্রাক খুলনা থেকে উদ্ধার, গ্রেফতার ৭ করোনা বিবেচনা করে ইউপি নির্বাচন হবে : সিইসি ঝিনাইদহে গৃহবধু রিতু হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন রংপুর বিভাগের ৮টি জেলার মধ্যে শুদ্ধাচার পুরষ্কার পেলেন গাইবান্ধার বিজ্ঞ জেলা প্রশাসক আবদুল মতিন গাইবান্ধা জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ ও শ্রেষ্ঠ এসআই গোবিন্দগঞ্জ থানা মির্জা ফখরুল প্রচণ্ড মিথ্যাচার করেন বলে ড. হাছান মাহমুদের দাবী

শিরোপার লড়াইয়ে বার্সা–রিয়াল–আতলেতিকোর দুশ্চিন্তা হলুদ কার্ডে

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১
  • ১৬ বার দেখা হয়েছে

আর মাত্র তিন ম্যাচ। এরপরই নিশ্চিত হয়ে যাবে লা লিগার শিরোপা যাবে কার ঘরে, শেষ হবে বার্সা-রিয়াল-আতলেতিকোর ত্রিমুখী লড়াই। ৩৫টি করে ম্যাচ শেষ হয়েছে তিন দলের। ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে আতলেতিকো শীর্ষে। দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ, তাদের পয়েন্ট ৭৫। ৩ নম্বরে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট ৭৫-ই। কিন্তু মুখোমুখি লড়াইয়ে পিছিয়ে থাকায় রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে পিছিয়ে আছে বার্সা। বোঝাই যাচ্ছে, লিগ নিয়ে স্পেনে কেমন হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছে এবার।

মৌসুমের শ্বাসরুদ্ধকর এই পর্যায়ে তিনটা ক্লাবই চাইবে বাকি তিন ম্যাচে নিজেদের সবচেয়ে শক্তিশালী একাদশ নামাতে, যাতে বাকি ম্যাচগুলো অন্তত ঠিকঠাক জেতা যায়। কিন্তু সেটা কি তারা পারবে? লা লিগার নিয়মনীতি বাগড়া দিচ্ছে বেরসিকের মতো।

লিগে পাঁচ হলুদ কার্ড দেখলে পরের ম্যাচে বসে থাকতে হবে, এমন নিয়ম আছে লা লিগায়। আর এই নিয়মেই কপাল পুড়তে পারে বার্সেলোনা ও আতলেতিকো মাদ্রিদের পাঁচজন খেলোয়াড়ের। প্রত্যেকেরই চারটি, না হয় ৯টি কিংবা ১৪টি করে হলুদ কার্ড দেখা হয়ে গিয়েছে। ওদিকে রিয়াল মাদ্রিদ অবশ্য এই দিকে একটু সুবিধাজনক অবস্থানে আছে। তাদের শিবিরে এমন সমস্যায় আছেন মাত্র একজন।

আতলেতিকো মাদ্রিদের পাঁচজন খেলোয়াড় যেকোনো মূহুর্তে নিষিদ্ধ হতে পারেন এক ম্যাচের জন্য।
আতলেতিকো মাদ্রিদের পাঁচজন খেলোয়াড় যেকোনো মূহুর্তে নিষিদ্ধ হতে পারেন এক ম্যাচের জন্য।ছবি: রয়টার্স
বার্সার ৬ জনের মোটামুটি সবাই মূল একাদশেরই খেলোয়াড়। এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি হলুদ কার্ড দেখেছেন জর্দি আলবা—৯টি। দলের অধিনায়ক লিওনেল মেসি, আতোয়ান গ্রিজমান, ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং ও অস্কার মিঙ্গেসা প্রত্যেকে লিগে এই মৌসুমে হলুদ কার্ড দেখেছেন চারটি করে। ওদিকে জেরার্ড পিকে কিংবা সের্হিও বুসকেতস যদি আর একটা হলুদ কার্ড দেখেন, তাহলে মেসিদের সঙ্গে শঙ্কায় পড়ে যাবেন তাঁরাও। পিকের তিনটি ও বুসকেতসের হলুদ কার্ড আটটি।

ওদিকে আতলেতিকোর সার্বিয়ান সেন্টারব্যাক স্তেফান সাভিচ হলুদ কার্ড দেখেছেন সবচেয়ে বেশি, ১৪টা। দুই স্প্যানিশ মিডফিল্ডার কোকে আর সল নিগেজ ৯টা করে হলুদ কার্ড দেখে শঙ্কায় আছেন, আরও একটা হলুদ কার্ড কীভাবে এড়ানো যায় বাকি তিন ম্যাচে। দুই ফরাসি মিডফিল্ডার টমাস লেমার ও জফ্রি কনদগবিয়া এবং স্প্যানিশ সেন্টারব্যাক মারিও হার্মোসো ৪টি করে হলুদ কার্ড দেখে একই ঝামেলায় আছেন। যদিও বার্সার বিপক্ষে চোটে পড়া লেমার আদৌ মৌসুমের বাকি তিন ম্যাচে নামতে পারবেন কি না, সেটাই সন্দেহ। তবে এই মৌসুমে শৃঙ্খলাবিষয়ক একটা কারণে আতলেতিকো বাহবা পেতে পারে, দলটার খেলোয়াড়েরা সব মিলিয়ে ৯২টি হলুদ কার্ড দেখলেও কেউ সরাসরি লাল কার্ড দেখেননি।

রিয়াল মাদ্রিদের কোচ জিনেদিন জিদানের চিন্তা শুধুই ব্রাজিলিয়ান রক্ষণাত্মক মিডফিল্ডার কাসেমিরোকে নিয়ে। সেদিন সেভিয়ার বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করার ম্যাচে মৌসুমের নবম হলুদ কার্ড দেখেছেন তিনি। আর একটা কার্ড দেখলেই পরের ম্যাচে দর্শক হয়ে থাকতে হবে। শিরোপাপ্রত্যাশী তিন দলের মধ্যে রিয়ালের খেলোয়াড়েরা হলুদ কার্ড দেখেছেন সবচেয়ে কম, ৫৩টা। তবে রিয়ালের তিন খেলোয়াড় সরাসরি লাল কার্ড দেখেছেন।

বার্সেলোনার খেলোয়াড়েরা হলুদ কার্ড দেখেছেন ৬২ বার, লাল কার্ড দুবার।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি