1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৪:৫৩ অপরাহ্ন

সংসার ভাঙছে বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী ব্রিনের

রিপোর্টার
  • আপডেট : বুধবার, ২২ জুন, ২০২২
  • ৮ বার দেখা হয়েছে

তিন বছরের স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের আবেদন করেছেন গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী সের্গেই ব্রিন।আদালতের নথিপত্রের তথ্য অনুযায়ী, ব্রিন চলতি মাসেই নিকোল শানাহানের সঙ্গে তার বিয়ে বিচ্ছেদের জন্য একটি পিটিশন দাখিল করেন। কারণ হিসেবে তিনি নিজেদের মধ্যে ‘মত পার্থক্যকে’ উল্লেখ করেন।

এই দম্পতির তিন বছর বয়সী এক ছেলে সন্তান রয়েছে। তারা বিচ্ছেদের বিবরণ গোপন রাখতে পদক্ষেপ নেন এবং নথিপত্রগুলো আদালতের মাধ্যমে সিলগালা করে দেওয়ার অনুরোধ জানান।

ক্যালিফোর্নিয়ার সান্তা ক্লারায় একটি আদালতে দখিল করা নথিপত্রের তথ্য অনুযায়ী, তাদের খ্যাতির কারণে বিবাহবিচ্ছেদের খবরে মানুষের উল্লেখযোগ্য পরিমাণ আগ্রহ এবং তাদের শিশুর সম্ভাব্য নিরাপত্তা সমস্যার কথা চিন্তা করে বিস্তারিত তথ্য গোপনের অনুরোধ করা হয়।

ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার্স ইনডেক্সের তথ্য অনুসারে, ৪৮ বছর বয়সী ব্রিনের সম্পদের মূল্য ৯ হাজার ৪০০ কোটি মার্কিন ডলার। এর বেশিরভাগ অংশ ১৯৯৮ সালে ল্যারি পেজের সঙ্গে তার প্রতিষ্ঠিত কোম্পানি গুগল থেকে আয় করেছেন। পরে হোল্ডিং কোম্পানি অ্যালফাবেট গঠন করেন। তিনি এবং পেজ উভয়েই ২০১৯ সালে অ্যালফাবেট ছেড়েছিলেন। যদিও তারা পরিচালনা পর্ষদে রয়েছেন এবং এখনও কোম্পানির নিয়ন্ত্রণকারী শেয়ারহোল্ডার।

এর আগে ব্রিন অ্যানি টোয়েন্টিথ্রিএন্ডমি এর সহপ্রতিষ্ঠাতা ওজসিকিকে বিয়ে করেন, যা ২০১৫ সালে বিচ্ছেদে গড়ায়।বিল গেটস এবং মেলিন্ডা ফ্রেঞ্চ গেটস তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘোষণা করার এক বছর পরে এবং জেফ বেজোস এবং ম্যাকেঞ্জি স্কটের বিবাহবিচ্ছেদের প্রায় তিন বছর পরে ব্রিনের সাম্প্রতিক সংসার ভাঙতে যাচ্ছে।

সেই সময়ে বিল গেটস এবং ফ্রেঞ্চ গেটসের ভাগ্য ভাগাভাগি করার জন্য ১৪৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছিল এবং বেজোস ও স্কটের বিচ্ছেদের সময় ছিল ১৩৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।সান ফ্রান্সিসকোতে সাইডম্যান অ্যান্ড ব্যানক্রফ্ট এলএলপি-র অংশীদার মনিকা মাজেই বলেন, ব্রিন এবং শানাহানের মধ্যে একটি বিবাহপূর্ব চুক্তি থাকতে পারে। যেহেতু তিনি বিলিয়নেয়ার হওয়ার অনেক পরে সম্পর্ক শুরু হয়েছিল।

তিনি বলেন, মামলাটি যেহেতু একজন প্রাইভেট বিচারক পরিচালনা করছেন, তাই বিবাহবিচ্ছেদের ব্যাপারে ‘আমরা কখনোই বিস্তারিত জানতে পারব না’।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি