1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
রাশিয়ায় করোনা সংক্রমণে রেকর্ড, তবু লকডাউনে ‘না’ ইরানি তেল ট্যাঙ্কার দখলের চেষ্টা জলদস্যুদের, প্রতিহত করল আলবর্জ ডেস্ট্রয়ার ‘আইএসআই-প্রধান নিয়োগ-জটিলতার অবসান হবে শুক্রবার’ গোপনে’ হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল চীন, অবাক যুক্তরাষ্ট্র বাতিল হচ্ছে পিইসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে টাইগাররা সয়াবিন তেলের দাম আরেক দফা বাড়ছে এদেশ সকল ধর্মের মানুষের : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আরও ২০১ জন করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু রোহিঙ্গা ও আটকেপড়া পাকিস্তানিরা দেশের জন্য বোঝা : প্রধানমন্ত্রী জামায়াত ছাড়া বিএনপি অচল : ওবায়দুল কাদের ‘দাঙ্গা লাগিয়ে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করাই ছিল তাদের উদ্দেশ্য’ দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমরা মিটিং করে যাচ্ছি : বাণিজ্যমন্ত্রী জয় দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করতে চায় টাইগাররা

সরকারের ভেতর ছড়িয়ে আছে তারেকের এজেন্ট

রিপোর্টার
  • আপডেট : বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৫৫ বার দেখা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : একজন মন্ত্রী পুত্রের সঙ্গে ব্যবসায়ী পরিচয় দিয়ে যোগাযোগ করেন তারেকের এক এজেন্ট। একটি কাজ পাইয়ে দেবার জন্য ঐ মন্ত্রী পুত্রকে নানারকম আর্থিক প্রস্তাব দেন। তাদের দুজনের সব কথোপকথন রেকর্ড করা হয়েছে। এটি চলে গেছে লন্ডনে ডেভিড বার্গম্যানের এডিটিং প্যানেলে। জি কে শামীমের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা ছিলো সরকারের বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তির। তাদের সঙ্গে নানা সময়ে ছবি তুলেছিলেন গণপূর্তের এই মাফিয়া ঠিকাদার। জি কে শামীম ছিলো আসলে তারেকের এজেন্ট। তার সঙ্গে সরকারের বিভিন্ন ব্যক্তির আলাপচারিতা এবং ছবিও পৌঁছে গেছে ডেভিড বার্গম্যানদের কাছে। সরকার বিরোধী প্রচারণার অস্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হবে এসব ছবি এবং অডিও ক্লিপ।

আল-জাজিরা টেলিভিশন চ্যানেলে এরকম ১০টি তথাকথিত প্রামাণ্য চিত্র প্রচারিত হবে। এসব অপপ্রচারের মূল টার্গেট হলো বর্তমান সরকার। এর মাধ্যমে দেশে এবং বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করা। আর তারেক জিয়ার এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য কাজ করছে, ডেভিড বার্গম্যানের নেতৃত্বে জামাত-বিএনপি ঘারানার একটি টীম।
অনুসন্ধানে দেখা গেছে, তারেকের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে লন্ডনে বার্গম্যানদের টীম কাজ করলেও ঢাকায় রয়েছে তারেকের শতাধিক এজেন্ট। এরা গোপনে সরকারের নানারকম তথ্য সংগ্রহ করে লন্ডনে পাচার করছে। এদের একটা বড় অংশ জি কে শামীম কিংবা শাহেদের মতো ব্যবসায়ী। এরা এখন যেকোনো ভাবে আওয়ামী লীগ এবং প্রশাসনের ঘনিষ্ঠ হয়েছে। নানা রকম ব্যবসায়িক প্রস্তাব নিয়ে এরা মন্ত্রী এবং সচিবদের সাথে একান্তে সাক্ষাৎ করছে। সরকারের প্রভাবশালীদের সাথে ঘনিষ্ঠ ছবি তুলছে। তাদের নানারকম লোভনীয় প্রস্তাব দিচ্ছে। আর এসব প্রস্তাবের কথোপকথন রেকর্ড করছে। মন্ত্রী বা সরকারের ঐ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি কি বলছে সেটি বিষয় নয়, অনৈতিক প্রস্তাবটিকে ধরেই তৈরি করা হচ্ছে কল্পিত কাহিনীর প্রামাণ্য চিত্র।
শুধু ব্যবসায়ী নয়, তারেকের এজেন্ট রয়েছে সরকারের ভেতরেও। এদের কেউ বড় পদে, কেউ একেবারে নিম্ন পদে। গোপনীয় এবং গুরুত্বপূর্ণ ফাইল এদের হাতধরেই এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যায়। এই যাত্রাপথে এরা এসব ফাইলের ছবি তুলে পাঠিয়ে দিচ্ছে লন্ডনে। সাথে সাথে তাদের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে টাকা। ‘অল দ্যা প্রাইম মিনিষ্টারস ম্যান’ প্রামাণ্য চিত্রে দেখা গেছে কিছু ছবি এবং কাগজপত্র, সেগুলো সরকারের ভেতরে থাকা তারেকের এজেন্টরাই পাঠিয়েছে। সরকারের বিরুদ্ধে কুৎসা অপপ্রচার বন্ধে এইসব গুপ্তচরদের আগে চিহ্নিত করা প্রয়োজন।

সূত্র : বাংলা ইনসাইডার

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি