1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০১:৪২ অপরাহ্ন

সাধারণ মুসল্লিদের ব্যানারে হেফাজতের তাণ্ডব চালানোর চেষ্টা

রিপোর্টার
  • আপডেট : শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫৭ বার দেখা হয়েছে

কুমিল্লার ঘটনার জেরে শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) জুমার নামাজের পর রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন সাধারণ মুসল্লিরা।

মিছিলটি রাজধানীর পল্টন-বিজয়নগর হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় পেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে ব্যারিকেড দেয় পুলিশ। তখন মিছিলকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছোড়ে। এতে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল ও সাউন্ডগ্রেনেড নিক্ষেপ করে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সাধারণ মুসল্লিদের ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল হলেও এতে হেফাজতে ইসলামসহ বেশকিছু রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের অংশ নিতে দেখা গেছে। বিক্ষোভ থেকে কোরআন অবমাননাকারীদের শাস্তির দাবির পাশাপাশি হেফাজতের সাবেক নেতা মাওলানা মামুনুল হকসহ সংগঠনটির আটককৃত নেতাদের মুক্তির দাবিতেও স্লোগান দিতে দেখা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী এক সাধারণ মুসল্লি বাংলা নিউজ ব্যাংককে জানায়, জুমার নামাজ শেষে আমরা সাধারণ মুসল্লিরা বায়তুল মোকাররমের সামনে দাঁড়িয়ে কুমিল্লার ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছিলাম। হঠাৎ করে মাথায় কালিমা লেখা কালো ফিতা বাঁধা কিছু মুসল্লী এসে সরকারবিরোধী বক্তব্য দিতে শুরু করে। পরবর্তীতে হেফাজতের সাবেক নেতা মাওলানা মামুনুল হকসহ সংগঠনটির নেতাদের মুক্তির দাবিতে স্লোগান দিতে থাকে।

এ বিষয়ে হেফাজত ইসলামের নতুন ভারপ্রাপ্ত আমির আল্লামা শাহ মুহিবুল্লাহ বাবুনগরীকে একাধিক বার ফোন করেও তার সাড়া পাওয়া যায়নি।

এদিকে বিএনপির নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাত দিয়ে জানা যায়, নির্বাচনকে সামনে রেখে আন্দোলন আন্দোলন বলে ব্যর্থ হওয়া বিএনপি হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজাকে ঘিরে গোপনে নাশকতার ছক কষছে। আর তাতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন তারেক রহামন। আর এই নীলনকশা বাস্তবায়নের জন্য ব্যয় ধরেছে ১০০ কোটি টাকা। আর যার পেছনে জামায়াতের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।

পুলিশের মতিঝিল বিভাগের একজন উপ-পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, দেশকে অশান্ত করতে একটি গোষ্ঠী সাধারণ মুসল্লিদের বিক্ষোভ প্রতিবাদকে ব্যবহার করে বড় ধরনের সহিংসতা ঘটাতে চেয়েছিল। পুলিশ শুরু থেকে শান্তিপূর্ণভাবে নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিল। নাইটিঙ্গেল মোড়ে আসার পর বিক্ষোভকারীদের মধ্য থেকে কপালে কালিমা লেখা ফিতা বাঁধা বেশ কয়েকজন সরকারবিরোধী স্লোগান দিতে দিতে পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল ছোড়ে।

তিনি আরো জানান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর অবস্থানের কারণে তারা সুবিধা করতে পারেনি।। বেলা আড়াইটার পর থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসে এবং যান চলাচল শুরু হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি