1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১১:২১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
উন্নত বাংলাদেশ গড়তে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি অপরিহার্য : রাষ্ট্রপতি একদিনে করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৪৮০ ‘বঙ্গবন্ধুর খুনি রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে’ বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নতুন আইজিপির শ্রদ্ধা এক দিনে রেকর্ড ৬৩৫ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি দুর্গোৎসব অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি : ডেপুটি স্পিকার ৪ বছরেও সড়ক আইন বাস্তবায়নে বিধিমালা হয়নি : ইলিয়াস কাঞ্চন তোয়াব খান ছিলেন বাংলাদেশের সাংবাদিকতা জগতের পথিকৃৎ : রাষ্ট্রপতি ইরানে পুলিশ স্টেশনে হামলায় বিপ্লবী গার্ডসের কর্নেলসহ নিহত ১৯ এ বছর এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি : শিক্ষামন্ত্রী

সিঙ্গাপুরের ট্রেড রিলেশনসমন্ত্রীর সাথে টিপু মুনশি’র ভার্চুয়াল বৈঠক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১
  • ২৪২ বার দেখা হয়েছে

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ রপ্তানি পণ্য বহুমুখী করণে কাজ করছে। বিশ্ববাজারে হালাল ফুডের একটি বড় বাজার সৃষ্টি হয়েছে। আগামী ২০২৩ সালের মধ্যে বিশ্ববাজারে প্রায় ২.৬ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের হালাল পণ্যের বাজার সৃষ্টি হতে পারে। বাংলাদেশ হালাল ফুট উৎপাদন করতে সক্ষম। এ ক্ষেত্রে সিঙ্গাপুরের নতুন প্রযুক্তি ও সহযোগিতা হালাল ফুড উৎপাদনে সহায়ক হবে। বাংলাদেশ যৌথ ভাবে হালাল ফুড উৎপাদনে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে সিঙ্গাপুরের সাথে কাজ করতে পারে। মিউচুয়াল রিকগণিশন, সার্টিফিকেশন এবং কোয়ালিটি নিশ্চিত করে দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় হালাল পণ্যের চাহিদা মিটানো সম্ভব। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘ভিশন-২০২১’ সফল করার মাধ্যমে বাংলাদেশ বিশ্ববাণিজ্যে নিজেদের অবস্থান শক্তিশালী করতে পেপারলেস ট্রেডে সক্ষমতা অর্জন করছে। এ জন্য বাংলাদেশ ইউএনএস্ক্যাপ এ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীগণ এখন ডিজিটাল বাংলাদেশের সুবিধা ভোগ করছে। বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তি ভিত্তিক কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অর্থনীতি, শিল্প, ব্যবসা-বাণিজ্যে দক্ষতা অর্জন করে নতুন নতুন কর্মক্ষেত্র এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টি করছে। বাংলাদেশ ২০২৬ সালে এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পর আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ভাবে বিভিন্ন দেশের সাথে এফটিএ বা পিটিএ স্বাক্ষরের এর মতো বাণিজ্য চুক্তি করে বাণিজ্য সুবিধা গ্রহণের চেষ্টা করছে। সিঙ্গাপুর এ ধরনের অনেক বাণিজ্যচুক্তি সম্পাদন করেছে, সিঙ্গাপুরের সাথে অভিজ্ঞতা শেয়ার করলে বাংলাদেশ উপকৃত হবে। এতে করে বাংলাদেশ বাণিজ্য চুক্তি সম্পাদনের সময় নেগোসিয়েশনে অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী আজ (২৪ জুন) “স্পট লাইট বাংলাদেশ” শীর্ষক ওয়েবিনারে ভার্চুয়ালি স্বাগত বক্তব্য প্রদানের পর সিঙ্গাপুরের ট্রান্সপোর্ট এন্ড মিনিস্টার ইন চার্জ অফ ট্রেড রিলেশনস এস. ইসওয়ারান (ঝ. ওংধিৎধহ) এর সাথে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার সময় এসব কথা বলেন। এসময় সিঙ্গাপুরের ট্রেড রিলেশনস মিনিস্টার যৌথভাবে বাংলাদেশে হালাল ফড উৎপাদন, বাণিজ্য চুক্তি সম্পাদনের অভিজ্ঞতা শেয়ার এবং বাংলাদেশে বিনিয়োগ বৃদ্ধির আগ্রহ প্রকাশ করেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় বাংলাদেশ ব্যবসা-বাণিজ্য সহজ করতে ইজ অফ ডুয়িং বিজনেস ইনডেক্সে বিশ্বে যে ২০ দেশ এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ তার একটি। বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটি(বিডা) দেশে বিনিয়োগ সহজ করতে সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও মন্ত্রণালয়গুলোর সাথে সমন্বয় করছে। যাতে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীগণ অতি সহজেই ব্যবসাবান্ধ পরিবেশে বিনিয়োগ করতে পারেন। এখন সবকাজ অনলাইনে সম্পন্ন করার জন্য সুযোগ সৃষ্টি করা হয়েছে। তাছাড়া, ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু করা হয়েছে, যাতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা যায়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন আমদানি ও রপ্তানি অফিস, জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ এন্ড ফার্মস এর অফিস, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর সেবা প্রদান ডিজিটাল করা হয়েছে। সেখানে অনলাইন সেবা চালু করা হয়েছে।  জাতীয় রাজস্ব বোর্ড আমদানি রপ্তানি সহজ করতে ন্যাশনাল সিংগেল উইনন্ডোজ চালু করেছে। সিঙ্গাপুর এবং বাংলাদেশের মধ্যে নৌ ও আকাশ পথে যোগাযোগ ব্যবস্থা এখন অনেক উন্নত হয়েছে। বাংলাদেশ সরকার পটুয়াখালিতে নতুন আধুনিক পায়রা সমুদ্র বন্দর চালু করেছে, মঙ্গা সমুদ্র বন্দরকে আধুনিক করা হয়েছে, চট্রগ্রাম সমুদ্র বন্দরে সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং চট্রগ্রামের মাতার বাড়িতে গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করছে।

এর আগে বাণিজ্যমন্ত্রী ভার্চুয়ালি এন্টারপ্রাইজ সিংগাপুর, সিঙ্গাপুর মেন্যুফেকচারার্স এ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ হাই কমিশন ইন সিঙ্গাপুর, বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটি, এফবিসিসিআই এবং বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার অফ সিঙ্গাপুর কর্তৃক  যৌথভাবে আয়োজিত “স্পট লাইট বাংলাদেশ” শীর্ষক ওয়েবিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি,এমপি।

অনুষ্ঠানে আরও উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন সিঙ্গাপুরের ট্রান্সপোর্ট এন্ড মিনিস্টার ইন চার্জ অফ ট্রেড রিলেশনস এস. ইসওয়ারান (ঝ. ওংধিৎধহ) এবং এসবিএফ দক্ষিণ এশিয়া বিজনেস গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান প্রসন মুখার্জি।  ওয়েবিনার সঞ্চালনা করেন বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম। ওয়েবিনারে প্যানেল আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন এফবিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট মো. জসিম উদ্দিন, সামিট পাওয়ার ইন্টারন্যাশনাল লি. এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মিসেস আয়সা আজিজ খান, সাউথ এশিয়া এন্ড মিডিল ইস্ট পিএসএ-এর রিজিওনাল সিইও ওয়ান সি ফং (ডধহ ঈযবব ঋড়ড়হম), মার্কেটার্স ইনস্টিটিউট বাংলাদেশে এর বোর্ড মেম্বার আসিফ ইকবাল, গ্রামীণ ফোন এক্সেলেটর এর প্রধান মিনহাজ আনোয়ার।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি