Warning: Creating default object from empty value in /home/jatioart/public_html/wp-content/themes/NewsFreash/lib/ReduxCore/inc/class.redux_filesystem.php on line 29
১৯ সেপ্টেম্বর কৃষক-শ্রমিক-মেহনতি মানুষের দাবি দিবস পালনের আহ্বান – দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি
  1. bdweb24@gmail.com : admin :
  2. arthonite@gmail.com : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৪৩ অপরাহ্ন

১৯ সেপ্টেম্বর কৃষক-শ্রমিক-মেহনতি মানুষের দাবি দিবস পালনের আহ্বান

রিপোর্টার
  • আপডেট : সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৭৩৮ বার দেখা হয়েছে

নিউজ ডেস্ক : ১৯ সেপ্টেম্বরকে দেশব্যাপী কৃষক-শ্রমিক-মেহনতি মানুষের দাবি দিবস হিসেবে পালনের আহ্বান জানিয়েছে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য। দিবসটি পালন উপলক্ষে আগামী শনিবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণজমায়েত করবে দলটি।
রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক ডা. এম এ সামাদ, সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হারুন খান, কৃষক মোর্চার আহ্বায়ক মোহাম্মদ মাসুম এক যৌথ বিবৃতিতে এ আহ্বান জানান।
বিবৃতিতে নেতারা বলেন, গত মার্চ মাস থেকে করোনা সংকটে দেশের কৃষক-শ্রমিক ও মেহনতি মানুষ বহুমুখী অর্থনৈতিক সংকটে জর্জরিত। উৎপাদন ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় সংগঠিত ও অসংগঠিত খাতে লাখ লাখ শিল্প ও দোকান শ্রমিক কর্মচ্যুত। একইভাবে হাজার হাজার প্রবাসী শ্রমিক দেশে ফেরত এসেছেন। ব্যাপক চাহিদার ঘাটতি, ভয়াবহ বন্যা ও যোগাযোগ ব্যবস্থা অচল থাকায় কৃষক সমাজ ফসলের ন্যায্যমূল্য থেকে বঞ্চিত। নগর ও গ্রামীণ অর্থনীতির মন্দায় দিন আনে দিন খায় মানুষগুলো ন্যূনতম উপার্জন থেকে বঞ্চিত।
বাম নেতারা বলেন, গত কিছুদিন ধরে নিত্যপণ্যের (মোটা চাল, পেঁয়াজ, ভোজ্য তেল ও শাকসবজি) বাজারে পাগলা ঘোড়া দৌড়াচ্ছে। সাধারণ খেটে-খাওয়া মানুষগুলোর পরিবার পরিজন নিয়ে নাভিশ্বাস উঠেছে। মোটের ওপরে করোনা সংকটে সরকারের ব্যর্থতায় সাধারণ মানুষ এখন শুধুমাত্র ওপরওয়ালার ওপর ভরসা করে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে দিন কাটাচ্ছে।
কৃষক-শ্রমিক-মেহনতি মানুষের সংকট সমাধানে সরকারের তড়িৎ পদক্ষেপ দাবি করেছে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য। একই সঙ্গে এই সংকট উত্তোরণে কয়েক দফা দাবি তুলে ধরা হয়। দাবিগুলো হলো-
১. সর্বজনীন রেশনিং ব্যবস্থা চালু করা।
২. কর্মচ্যুত শ্রকিদের জন্য বিশেষ আর্থিক প্রণোদনার ব্যবস্থা করা।
৩. গ্রামে গ্রামে সমবায় কৃষি খামার গড়ে তোলা।
৪. গ্রামীণ স্তরে আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা গড়ে তোলা এবং
৫. কৃষকের অর্থকরী ফসল পাট উৎপাদন ও পাটপণ্যের প্রসারে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি