1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
  3. [email protected] : lalashimul :
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১১:৩৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
১৫ আগস্ট শুধু শোক দিবস নয়, শক্তি সঞ্চয়েরও দিন : সেতুমন্ত্রী আন্তঃব্যাংক চেক নিষ্পত্তির নতুন সূচি ঘোষিত মুদ্রানীতি গতানুগতিক : ডিসিসিআই ছুটির দিনে বের হয়ে রাজধানীতে গ্রেফতার ৩৮১ আবারও প্রতিপক্ষ হয়ে লড়াইয়ে শাহরুখ-সালমান সাংবাদিকের ফোনে পেগাসাসের আড়িপাতার বিষয়টি নিশ্চিত করল ফ্রান্স লকডাউন কার্যকর করতে সিডনিতে সেনা মোতায়েন টিকা নিলে ১০০ ডলার করে দেয়ার প্রস্তাব বাইডেনের ঈদের পর ৭৮১ কোটি টাকা হারালেন বিনিয়োগকারীরা করোনায় আক্রান্ত মেহের আফরোজ শাওন অলিম্পিক থেকে জোকোভিচের বিদায় ১ আগস্ট থেকে খুলবে গার্মেন্টসসহ সব শিল্প-কারখানা এক দিনে আরও ১৭০ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে এই সপ্তাহেই আসছে অক্সফোর্ডের আরও ১৩ লাখ টিকা ভারত থেকে আরও দুইশ মেট্রিক টন তরল অক্সিজেন এলো দেশে

২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ও মৃত্যু বাড়ল

রিপোর্টার
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১১১ বার দেখা হয়েছে

গত ২৪ ঘণ্টায় (সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা) করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে দেশে মারা গেছেন আরও ২০ জন। এ সময় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৭০২ জন। আজ মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে। আগের দিনের তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু বেড়েছে। আগের দিন শনাক্ত হয় ৬৯৭ জন ও মারা যান ১৬ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে সুস্থ হয়েছেন ৬৮২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৯৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে বাংলাদেশে মোট মারা গেছেন ৭ হাজার ৯৪২ জন। আর দেশে করোনাভাইরাসে মোট সংক্রমিত হয়েছেন ৫ লাখ ২৯ হাজার ৩১ জন। করোনায় সংক্রমিত লোকজনের মধ্যে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৭৩ হাজার ৮৫৫ জন।
বাংলাদেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন। এরপর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। ক্রমেই মহামারি আকারে সংক্রমণ বিশ্বের প্রায় সব দেশে ছড়িয়ে পড়ে। শুরুর দিকে রোগী শনাক্তের হার কম ছিল। গত বছরের মে মাসের মাঝামাঝি থেকে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। ওই মাসের শেষের দিক থেকে রোগী শনাক্তের হার ২০ শতাংশের ওপরে চলে যায়, যা আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত বজায় ছিল। এরপর থেকে নতুন রোগীর পাশাপাশি শনাক্তের হারও কমতে শুরু করেছিল।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, সারা দেশে করোনা রোগীদের জন্য নির্ধারিত শয্যা রয়েছে ১০ হাজার ৩৮১টি। এসব শয্যায় গত রোববার রোগী ভর্তি ছিলেন ২ হাজার ১২ জন। আর আইসিইউ শয্যা নির্ধারিত রয়েছে ৫৯৮টি। তাতে রোগী ভর্তি ছিলেন ২১০ জন।

দেশের মোট চিকিৎসাধীন রোগীর মাত্র ৪ দশমিক ৬৮ শতাংশ হাসপাতালে সেবা নিচ্ছেন। দেশের চিকিৎসাধীন রোগীর বড় অংশ বাড়িতে থেকেই সুস্থ হচ্ছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি