1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : জাতীয় অর্থনীতি : জাতীয় অর্থনীতি
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৮:৪৯ অপরাহ্ন

৬০০ কোটি ডলার ফেরত পেয়ে ৫ মার্কিন নাগরিক মুক্তি দিল ইরান

রিপোর্টার
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১০৪ বার দেখা হয়েছে

দক্ষিণ কোরিয়ায় জব্দ হওয়া ৬০০ কোটি ডলার ফেরত পেয়েছে ইরান। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্ততায় এই অর্থ ফেরত পেয়েছে দেশটি। এরপরই পাঁচ মার্কিন নাগরিককে মুক্তি দিয়েছে ইরান। যুক্তরাষ্ট্রও পাঁচ ইরানিকে মুক্তি দিয়েছে। দুদেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে এটি বড় ঘটনা হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।
সোমবার মুক্তি পাওয়ার পর মার্কিন নাগরিকরা কাতারের দোহা বিমানবন্দরে পৌঁছেছেন। তাদের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। খবর এপি ও রয়টার্সের

ইরানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর মোহাম্মাদ রেজা ফারজিন বলেছেন, দক্ষিণ কোরিয়ায় আটকে থাকা ৬০০ কোটি ডলার আল আহলি ও দুখান ব্যাংকের ইরানি অ্যাকাউন্টে জমা হয়েছে। কাতারের ওই দুই ব্যাংকে ইরানের ছয়টি অ্যাকাউন্টে এসব অর্থ জমা হয়।
দক্ষিণ কোরিয়ায় আটকে থাকা ইরানি অর্থ ছাড় প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, দক্ষিণ কোরিয়ায় উরি ও আইবিকে ব্যাংকের পাশাপাশি মেল্লাত ব্যাংকের সিউল শাখায় আটকে থাকা সব ইরানি অর্থ গত ১০ আগস্ট সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংকে পাঠানো হয়। ওই অর্থকে ইউরোতে রূপান্তরিত করতে সেখানে পাঠানো হয়েছিল।
ইরানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর বলেন, গতকাল রোববার কাতারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়ে জানানো হয় সে দেশে ইরানি ব্যাংকগুলোর অ্যাকাউন্ট সক্রিয় হয়েছে। এরপর ইরানের অ্যাকাউন্টে ইউরো জমা হয়।
দক্ষিণ কোরিয়া ইরানের অর্থ আটকে রাখায় যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা আদায়ের লক্ষ্যে কাজ চলছে বলেও তিনি জানান। মোহাম্মাদ রেজা ফারজিন বলেন, আরও কয়েকটি দেশে আটকে থাকা ইরানি অর্থ ছাড়ের বিষয়ে কাজ চলছে। বিষয়টি চূড়ান্ত হলে তা ঘোষণা করা হবে।

মুক্তি পাওয়াদের মধ্যে একজনের নাম সিয়ামাক নামাজি। তিনি এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমি আজ মুক্ত হতাম না, যদি আপনারা আমার হয়ে কথা না বলতেন। এর জন্য আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ।’
তেহরান থেকে ওই পাঁচজনকে বহনকারী বিমানটি কাতারের দোহায় অবতরণ করার সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ‘ইরানে বন্দী পাঁচজন নিরপরাধ আমেরিকান অবশেষে দেশে ফিরে আসছেন।’
বাইডেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কাতারের অ্যাকাউন্টে ওই তহবিল স্থানান্তর করা হলেও তা শুধু জনগণের ‍নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয়ে ব্যবহার করতে পারবে ইরান। এজন্য প্রতিটি লেনদেন মার্কিন ট্রেজারি বিভাগ পর্যবেক্ষণ করবে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, চুক্তিটি সফলভাবে সম্পন্ন হলে, তা ওয়াশিংটন এবং তেহরানের মধ্যকার কয়েক বছর ধরে চলে আসা পরোক্ষ আলোচনার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ কূটনৈতিক অগ্রগতি বয়ে আনবে।

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক জাতীয় অর্থনীতি